• জাতীয়

    খেলার নিয়ম ভঙ্গ করলে খবর আছে : ওবায়দুল কাদের

      প্রতিনিধি ২০ নভেম্বর ২০২২ , ৮:৪৮:৩১ প্রিন্ট সংস্করণ

    চট্টবাণী ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাতের আঁধারে কাঁচপুর সেতুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধনী ফলক পুড়িয়ে ফেলেছে, ভেঙ্গে ফেলেছে, এরা কারা? এরা আগুন সন্ত্রাস। আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে খেলা হবে, প্রস্তুত হয়ে যান। রাজনীতি রাজনৈতিকভাবে আমরা মোকাবিলা করব। যদি খেলার নিয়ম ভঙ্গ করেন তাহলে খবর আছে।



    রোববার (২০ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় মাসকট প্লাজার সামনে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি, জামায়াত ও উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর সন্ত্রাস ও ভয়াবহ নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

    ওবায়দুল কাদের বলেন, খেলা হবে ভোট চুরির বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে, ভুয়া ভোটার তালিকা প্রণয়নকারীদের বিরুদ্ধে, খেলা হবে বিএনপির বিরুদ্ধে। খেলা হবে আগামী ডিসেম্বরে।



    তিনি বলেন, ফখরুল ভাই, বড় বড় কথা বলছেন, মুচলেকা দিয়ে তারেক রহমান লন্ডনে গেছেন। বিএনপি স্বাধীনতার শত্রু। বিজয়ের মাসে প্রস্তুত হয়ে যান। গণতন্ত্র বিএনপি গিলে খেয়েছে। আইনের শাসন গিলে খেয়েছে, আবার ক্ষমতায় এলে বিএনপি বাংলাদেশ গিলে খাবে।

    সেতুমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ রাজপথে থাকবে, কেউ খেলতে এলে জবাব দেওয়া হবে। আপনারা প্রস্তুত থাকুন। এখন সামনে কত লোক, পেছনে কত লোক, কিছুই আমি দেখছি না।

    তিনি আরো বলেন, অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে, আপনাদের প্রস্তুত থাকতে হবে। আমরা জানি দেশের মানুষ কষ্টে আছে, তেলের দাম, জিনিসপত্রের দাম এখন বাড়তির দিকে। গরিবরা কষ্ট পাচ্ছে। বিএনপি যতই অপপ্রচার করুক, শেখ হাসিনা বলেছেন বাংলাদেশে দুর্ভিক্ষ হবে না।



    কাদের বলেন, ভুলে যান তত্ত্বাবধায়ক। সেটি মৃত, মৃত ইস্যুকে জীবিত করার অপচেষ্টা করবেন না। স্বপ্ন দেখছেন? স্বপ্ন দুঃস্বপ্ন হয়ে যাবে, খেলা হবে। আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না শেখ হাসিনা। ভয় দেখাবেন না। আওয়ামী লীগ জীবিত আছে। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। খেলা হবে, হবে ইনশাআল্লাহ।

    বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, পরিবর্তন চাইলে নির্বাচনে আসুন। নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতা পালাবদলের কোনো সুযোগ নেই। নির্বাচনে ঠিক হবে কারা ক্ষমতা থাকবে, কারা চলে যাবে।

    অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম।



    ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী সভাপতি বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশ সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি প্রমুখ। সমাবেশের সার্বিক সহযোগিতা করেন ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য হাবিব হাসান।