• মহানগর

    আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে একুশের আলোচনা সভা

      প্রতিনিধি ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ , ৩:৪৪:৪৭ প্রিন্ট সংস্করণ

    নিজস্ব প্রতিবেদক: ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে গত মঙ্গলবার একুশে ফেব্রুয়ারি যথাযোগ্য মর্যাদা আর ভাবগাম্ভির্য্যরে মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস দিবস উদযাপন করা হয়।



    সকালে জাতীয় পতাকা (অর্ধনমিত) এবং কালো পতাকা উত্তোলনের পর প্রভাতফেরী করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন, সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী এস এম শহিদুল আলম এবং নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম. এ. রশীদসহ বিপুল সংখ্যক প্রকৌশলী প্রভাতফেরীতে অংশগ্রহণ করেন।



    পরে কেন্দ্রের মিলনায়তনে প্রকৌশলী সদস্যদের সন্তানদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন এর সভাপতিত্বে এবং সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী এস এম শহিদুল আলম এর সঞ্চালনায় শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভায় কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।



    অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে কেন্দ্রের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম. এ. রশীদ, প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোঃ দেলোয়ার হোসেন, পিইঞ্জ, ও প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, ভাইস-চেয়ারম্যান (একা. এন্ড এইচআরডি) প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, প্রাক্তন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী উদয় শেখর দত্ত, বিশিষ্ট প্রকৌশলী খুরশেদ উদ্দিন আহমেদ বাদল, চুয়েটের অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী জি এম সাদিকুল ইসলাম, অধ্যাপক প্রকৌশলী বিপুল চন্দ্র মন্ডল, কাউন্সিল সদস্য প্রকৌশলী অসীম সেন, প্রকৌশলী গিয়াস ইবনে আলম, নবনির্বাচিত কাউন্সিল সদস্য প্রকৌশলী অভিজিৎ কুমার দেব, প্রকৌশলী সুমন বসাক, প্রকৌশলী শেখ রাব্বি তৌহিদুল ইসলাম, পিইঞ্জ. এবং প্রকৌশলী রূপক বড়ুয়া বক্তব্য রাখেন।



    অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কাউন্সিল সদস্য প্রকৌশলী প্রদীপ বড়ুয়া। সিনিয়র প্রকৌশলী নিখিল রঞ্জন দাশ ও প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরীসহ অনেকেই একুশের স্মরণে কবিতা আবৃত্তি করেন।

    এছাড়া দেশাত্ববোধক সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সাংস্কৃতিক উপকমিটির আহবায়ক প্রকৌশলী অসিত বরণ দে এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের নিজস্ব শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।



    সবশেষে চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার এবং প্রতিযোগিতায় সকল অংশগ্রহণকারী শিশু কিশোরদের মাঝে উৎসাহ পুরস্কার বিতরণ করা হয়।